Logo
সংবাদ শিরোনাম :
কাল বসন্ত পঞ্চমী, এই দিনটির তাৎপর্য ও ইতিহাস কমলগঞ্জে শেখ কামাল আন্ত:স্কুল ও মাদ্রাসা অ্যাথলেটিকস প্রতিযোগিতা কমলগঞ্জে বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমান ক্রিকেট চ্যাম্পিয়নশীপস এর উদ্বোধন কমলগঞ্জে ব্যবসায়িক দ্বন্দ্বে ছুরিকাঘাতে আহত যুবকের মৃত্যু কমলগঞ্জে কিশোরী ক্লাবের ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান কমলগঞ্জে সাঁওতালদের ঐতিহ্যবাহী ‘সোহরাই’ উৎসব অনুষ্ঠিত কমলগঞ্জে সারথী কথামৃত’র বিশেষ ক্রোড়পত্রের মোড়ক উন্মোচন মৌলভীবাজারে ‘শব্দচর’’ সাহিত্য পত্রিকার প্রকাশনা উৎসব কমলগঞ্জে সপ্তাহব্যাপী নৃত্য প্রশিক্ষণ কর্মশালার উদ্বোধন কমলগঞ্জ প্রেসক্লাবে প্রবাসী কল্যাণ পরিষদের আর্থিক অনুদান প্রদান

মৌলভীবাজার সদরে ৪ টিতে নৌকা ও ৮টিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী জয়

রিপোটার : / ৩৭৮ বার দেখা হয়েছে
প্রকাশিত : সোমবার, ২৭ ডিসেম্বর, ২০২১

image_pdfimage_print

কমলকন্ঠ রিপোর্ট ।। মৌলভীবাজার সদর উপজেলার ১২টি ইউনিয়নে ভোট কেন্দ্র দখল, জাল ভোট প্রদান ও কিছু বিচ্ছিন্ন ঘটনার মধ্যদিয়ে ভোট গ্রহন শেষ হয়েছে।
রোববার ২৬ ডিসেম্বর সকাল ৮ টা থেকে তীব্র শীত উপেক্ষা করে শান্তিপূর্ণভাবে মৌলভীবাজার সদর উপজেলার ১২ টি ইউনিয়নের ১১৪ টি ভোট কেন্দ্রের ভোট গ্রহন শুরু হয়ে চলে টানা বিকাল ৪টা পর্যন্ত। এর পর সন্ধ্যা পর্যন্ত চলে ভোট গননা। গননা শেষে রাতে সদর উপজেলায় বিভিন্ন ইউনিয়নের দ্বায়িত্ব প্রাপ্ত রিটার্নিং কর্মকর্তার স্বাক্ষরিত বিজয়ী ও পরাজিত চেয়ারম্যান প্রার্থীদের চুড়ান্ত ফলাফল প্রকাশ করা হয়
ঘোষিত ফলাফল অনুযায়ী সদর উপজেলার ৪টি ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ মনোনিত নৌকা প্রার্থী জয়ী হয়েছেন। ৮টি ইউনিয়নের ৩টি আওয়ামীলীগ বিদ্রোহী ও ৫টি স্বতন্ত্র প্রার্থী জয়ী হয়েছেন। জেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, সদর উপজেলার ১২টি ইউনিয়নে ভোটার সংখ্যা ২ লাখ ৯ হাজার ১৬৯ জন।
মৌলভীবাজার সদর উপজেলার ১২টি ইউনিয়নের বেসরকারি ফলাফল :-
১নং খলিলপুর ইউনিয়ন : আনারস প্রতীক নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী ৫ হাজার ২শত ৬৩ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন আবু মিয়া চৌধুরী। তাঁর নিকঠতম প্রতিদ্বন্দ্বী নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মোঃ অলিউর রহমান পেয়েছেন ৪ হাজার ৯শত ৯৯ ভোট, মোঃ আশরাফ আলী খান স্বতন্ত্র (ঘোড়া প্রতীক) পেয়েছেন ৩২৪২ ভোট, মোঃ মুজিবুর রহমান স্বতন্ত্র (মটর সাইকেল) পেয়েছেন ৯১৪ ভোট।
২নং মনুমুখ ইউনিয়ন : নৌকা প্রতীক নিয়ে এমদাদ হোসেন ৩ হাজার ৬শত ৬১ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন, নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী মোহাম্মদ মর্তুজা আনারস প্রতীক নিয়ে ৩ হাজার ১শত ৪৯ ভোট পেয়েছেন। শাহ মোশাহিদ আহমদ স্বতন্ত্র (ঘোড়া প্রতীক) পেয়েছেন ১০৫১ ভোট, মোঃ মর্তুজা স্বতন্ত্র (আনারস) পেয়েছেন ৩১৪৯ ভোট, আব্দুল হক সেফুল স্বতন্ত্র (মটরসাইকেল প্রতীক) পেয়েছেন ৩০০১ ভোট।
৩নং কামালপুর ইউনিয়ন : ঘোড়া প্রতীক নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী (আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী) মোঃ আপ্পান আলী ২ হাজার ২শত ৮৯ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বর্তমান চেয়ারম্যান ও চশমা প্রতীক স্বতন্ত্র প্রার্থী ফয়সল আহমদ পেয়েছেন ২ হাজার ১শত ৭৯ ভোট। রাজু আহমদ স্বতন্ত্র (হাতপাখা প্রতীক) পেয়েছেন ১০৪ ভোট, সোহেল আহমদ স্বতন্ত্র (অটোরিক্সা প্রতীক) পেয়েছেন ১৭৩৯ ভোট, মোঃ আলাইর রহমান স্বতন্ত্র (মটর সাইকেল প্রতীক) পেয়েছেন ৪৪৪ ভোট, মোঃ আব্দুর রহমান আওয়ামীলীগ মনোনীত স্বতন্ত্র (নৗকা প্রতীক) পেয়েছেন ৬০১ ভোট, মোঃ আব্দস সালাম স্বতন্ত্র (টেলিফোন প্রতীক) পেয়েছেন ১২২৬ ভোট, আব্দুল খালিক স্বতন্ত্র (আনারস প্রতীক) পেয়েছেন ৮৭৩ ভোট।
৪নং আপার কাগাবলা ইউনিয়ন : মোটরসাইকেল প্রতীক নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী ইমন মোস্তফা ৩ হাজার ১শত ৭০ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী চশমা প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী মোঃ ফারুক আহমদ পেয়েছেন ২ হাজার ৭শত ৯২ ভোট। মোঃ আব্দুল মতিন স্বতন্ত্র (আনারস প্রতীক) পেয়েছেন ২৭৮৭ ভোট, মোঃ মুজিবুর রহমান আওয়ামী লীগ মনোনিত (নৌকা প্রতীক) পেয়েছেন ২৫০৫ ভোট, শাহিন মিয়া, ইসলামী আন্দোলন (হাতপাখা প্রতীক) পেয়েছেন ২৬৮ ভোট।
৫নং আখাইলকুড়া ইউনিয়ন : নৌকা প্রতীকের প্রার্থী শেখ মোঃ বদরুজ্জামান চুনু ২ হাজার ৮শত ৬৬ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন, নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সাবেক চেয়ারম্যান ও মোটরসাইকেল প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী মোঃ শামিম আহমদ ২ হাজার ৬ শত ৭২ ভোট পেয়েছেন। সেলিম আহমদ স্বতন্ত্র (আনারস প্রতীক) পেয়েছেন ২৩৫১ ভোট, এমদাদুর রহমান স্বতন্ত্র (ঘোড়া প্রতীক) পেয়েছেন ৭৭৮ ভোট।
৬নং একাটুনা ইউনিয়ন : নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ও বর্তমান চেয়ারম্যান আবু সুফিয়ান ৭ হাজার ৮শত ৩২ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন।
নিকটতম প্রতিদ্বন্দি স্বতন্ত্র প্রার্থী (আওয়ামীলীগ বিদ্রোহী) শাহ গিয়াস উদ্দিন ঘোড়া প্রতীক নিয়ে ২ হাজার ১শত ৭৯ ভোট পেয়েছেন।
৭ নং চাঁদনীঘাট ইউনিয়ন : নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আখতার উদ্দিন ৫ হাজার ৩শত ৪৫ ভোট বিজয়ী হয়েছেন।
নিকটতম প্রতিদ্বন্দি ঘোড়া প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী তাহেরুল ইসলাম পেয়েছেন ৪ হাজার ৪ শত ৭ ভোট। ছাদিকুর রহমান স্বতন্ত্র (টেলিফোন প্রতীক) পেয়েছেন ৩৭৮৪ ভোট, আসলাম মিয়া স্বতন্ত্র (চশমা প্রতীক) পেয়েছেন ২৭১৭ ভোট, কামাল আহমদ বেলাল স্বতন্ত্র (মটর সাইকেল প্রতীক) পেয়েছেন ১৫৯ ভোট, মোঃ মিজানুর রহমান স্বতন্ত্র (আনারস প্রতীক) পেয়েছেন ১৪ ভোট।
৮নং কনকপুর ইউনিয়ন : চশমা প্রতীক নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী রুবেল উদ্দিন ৩ হাজার ৩ শত ৭১ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। নিকটতম প্রতিদ্বন্দী আওয়ামীলীগের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী জুবায়ের আহমদ পেয়েছেন ২ হাজার ৬ শত ৯০ ভোট। মনিরুজ্জামান স্বতন্ত্র (ঘোড়া প্রতীক) পেয়েছেন ১৮৬০ ভোট, রেজাউর রহমান চৌধুরী স্বতন্ত্র (আনারস প্রতীক) পেয়েছেন ১৫৫৭ ভোট, সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী স্বতন্ত্র (অটোরিক্স প্রতীক) পেয়েছেন ১২৬৭ ভোট, আব্দুল কাইয়ুম স্বতন্ত্র (মটর সাইকেল প্রতীক) পেয়েছেন ৪৩৩ ভোট, আব্দুল মুয়ীদ, ইসলামী আন্দোলন (হাতপাখা প্রতীক) পেয়েছেন ৭ ভোট।

৯নং আমতৈল ইউনিয়ন : আনারস প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী (আওয়ামীলী বিদ্রোহী) সুজিত চন্দ্র দাশ ৪ হাজার ৮শত ৮২ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন।
নিকটতম প্রতিদ্বন্দী চশমা প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী ও বর্তমান চেয়ারম্যান মোঃ রানা খাঁন শাহীন পেয়েছেন ৩ হাজার ৭২ ভোট। মোঃ মখলিছুর রহমান আওয়ামীলীগ মনোনিত (নৌকা প্রতীক) পেয়েছেন ২৫৪২ ভোট, মোঃ তাহের মিয়া স্বতন্ত্র (ঘোড়া প্রতীক) পেয়েছেন ২৪১২ ভোট।
১০নং নাজিরাবাদ ইউনিয়ন : চশমা প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী আশরাফ উদ্দিন আহমদ ৩ হাজার ৩শত ৯ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন।
নিকটতম প্রতিদ্বন্দী স্বতন্ত্র প্রার্থী ও বর্তমান চেয়ারম্যান সৈয়দ এনামুল হক রাজা (মোটরসাইকেল প্রতীক) নিয়ে ২ হাজার ৬ শত ৬ ভোট পেয়েছেন। মোঃ মাহমুদুর রহমান স্বতন্ত্র (আনারস প্রতীক) পেয়েছেন ২৪১২ ভোট, মোঃ আশিকুর রহমান আওয়ামীলীগ মনোনিত (নৌকা প্রতীক) পেয়েছেন ১৭৯৯ ভোট, সৈয়দ মুহিত আলী স্বতন্ত্র (ঘোড়া প্রতীক) পেয়েছেন ১৭২৫ ভোট, মোঃ মোস্তাহিদ আলী স্বতন্ত্র (অটো রিক্সা প্রতীক) পেয়েছেন ১১১৩ ভোট।
১১নং মোস্তফাপুর ইউনিয়ন : আনারস প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী ও বর্তমান চেয়ারম্যান তাজুল ইসলাম তাজ ৬ হাজার ৪শত ৪৩ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন।
নিকটতম প্রতিদ্বন্দী ঘোড়া প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী) তোফায়েল আহমদ তুয়েল পেয়েছেন ৪ হাজার ৮শত ৯৫ ভোট। মোঃ খসরু আহমদ স্বতন্ত্র আওয়ামীলীগ মনোনিত (নৌকা প্রতীক) পেয়েছেন ৭৮৪ ভোট, আব্দুর রহমান স্বতন্ত্র (চশমা প্রতীক) পেয়েছেন ১৫১ ভোট।
১২নং গিয়াসনগর ইউনিয়ন : মোটরসাইকেল প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী (আওয়ামীলীগ বিদ্রোহী) গোলাম মোশারফ টিটু ৫ হাজার ৫শত ৯৯ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন।
নিকটতম প্রতিদ্বন্দি স্বতন্ত্র প্রার্থী মোঃ জিলা মিয়া (অটোরিক্সা প্রতীক) নিয়ে পেয়েছেন ৪ হাজার ৪ শত ৩০ ভোট। আব্দুল মুকিত স্বতন্ত্র (চশমা প্রতীক) পেয়েছেন ১৮৮৩ ভোট, সৈয়দ গৌছুল হোসেন স্বতন্ত্র (আনারস প্রতীক) পেয়েছেন ১৮১৮ ভোট, ছুরুক মিয়া আওয়ামীলীগ মনোনিত (নৌকা প্রতীক) পেয়েছেন ১৬১৪ ভোট, আব্দুল মুকিত স্বতন্ত্র (ঘোড়া প্রতীক) পেয়েছেন ১৪২ ভোট।
জেলা নির্বাচন অফিস ও প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, মৌলভীবাজার সদর উপজেলার ১২টি ইউনিয়নের ১১৪ টি ভোট কেন্দ্রে মোট ভোটার রয়েছেন দু’লক্ষ ৯ হাজার ১শত ৫৯ জন। যেখানে ক্ষমতাসীন আওয়ামীলীগের নৌকা প্রতীকের ১২ জন প্রার্থী, বিদ্রোহী ও স্বতন্ত্র মিলে মোট ৬১ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করেন। এতে মেম্বার পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন মোট ৪২৯ জন ও নারী সদস্য পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন মোট ১৪০ জন প্রার্থী।


আরো সংবাদ পড়ুন...

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০৩১  
Developed By Radwan Ahmed