Logo

মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালে অনিয়মের অভিযোগ

রিপোটার : / ৩৩৫ বার দেখা হয়েছে
প্রকাশিত : বৃহস্পতিবার, ২ ডিসেম্বর, ২০২১

image_pdfimage_print

কমলকন্ঠ ডেস্ক ।। মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট সদর হাসপাতালে কেবিনে থাকা রোগীর কাছ থেকে একটি সংঘবদ্ধ প্রতারক চক্র হাতিয়ে নিয়েছে নগদ টাকা। ঘটনাটি ঘটেছে ১ ডিসেম্বর সকাল ৯ ঘটিকায় হাসপাতালের একটি কেবিন কক্ষে।
জানা গেছে, গত ২৯ নভেম্বর হাসপাতালের গাইনি ওয়ার্র্ডে সন্তান সম্ভাবনা সুমাইয়া আক্তারকে ভর্তি করান কমলগঞ্জ উপজেলার গোবিন্দপুর এলাকায় স্বামী মোঃ মোবাশ্বির আলী। ওই দিন রাত ৯ ঘটিকায় সিজার অপারশেন মাধ্যমে পুত্রসন্তান জন্ম হয়। পরদির ৩০ নভেম্বর স্ত্রী ও তার মা হেলালুননাহার কুলচুমা বেগমকে নিয়ে হাসপাতালের ৩ তলায় ৬ নাম্বার কেবিনে উঠেন।
মোঃ মোবাশ্বির আলী জানান, ১ ডিসেম্বর সকাল ৯ ঘটিকায় একটি প্রতারক চক্র হাসপাতালে কেবিনে যায়। এসময় তিনি বাহিরে ছিলেন। এসময় তার মাতা কুলসুমা বেগমকে প্রতারক চক্রটি নগদ ২০ হাজার টাকা এককালিন অনুদান দেবে বলে জানায়। এক্ষেত্রে কুলচুমা বেগমের সাথে কথা বলে একটি ফরম পূরণ করে প্রতারক চক্র। পরে ২ হাজার চাওয়া হয়। এসময় কুলসুমা বেগমের কাছে থাকা ১১ ‘শ টাকা দিয়ে দেন। প্রতারকের গায়ে কালো জ্যাকেট ও প্যান্ট পরা ছিল। পুরো ঘটনাটি মোবাশ্বির আলী তার ‘মা’ এর কাছ থেকে জেনে ওই কালো জ্যাকেট পরা লোক খুঁজতে থাকেন। পরে না পেয়ে হাসপাতালে ৩ তলায় সেবিকা কাউন্টারে বিষয়টি অবগত করেন। ওইদিন সকালে ১১ টায় হাসপাতালের নিচতলায় কোভিড টিকার লাইনে দাঁড়ানো থাকা অবস্থায় এক নারীর স্বর্ণের চেইন ছিনতাই করে নিয়ে যায় একটি চক্র।
মোবাশ্বির আলীর গ্রামের বাড়ি কমলগঞ্জ উপজেলার গোবিন্দপুর এলাকায়। তিনি একজন কৃষক এবং একটি মসজিদে ইমামতি করেন। প্রায় ৫ বছর পূর্বে সদর হাসপাতালে আরোও এক পুত্র সন্তান জন্ম নেয়। এনিয়ে তিনি ২ সন্তানের জনক।


আরো সংবাদ পড়ুন...

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০৩১  
Developed By Radwan Ahmed