Logo

কমলগঞ্জে ইউনিয়ন নির্বাচন আসার আগেই ব্যানার ফেস্টুনে ভরে গেছে হাট-বাজার

রিপোটার : / ৬১৮ বার দেখা হয়েছে
প্রকাশিত : শুক্রবার, ২৫ ডিসেম্বর, ২০২০

image_pdfimage_print

ষ্টাফ রিপোর্ট ।। ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের তফশিল ঘোষনা না হলেও মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার ৯ ইউনিয়ন পরিষদের মেয়াদ শেষ হওয়ায় আগেই ওই ইউনিয়নগুলোতে বইছে নির্বাচনী হাওয়া। সম্ভাব্য প্রার্থীদের শুভেচ্ছা ব্যানার ও ফেস্টুনে ভরে গেছে হাট-বাজার ও গ্রাম অঞ্চল। বাড়ি বাড়ি কুশল বিনিময়ও করছেন তারা। চায়ের দোকানে সম্ভাব্য প্রার্থীদের নিয়ে চলছে আলোচনা-সমলোচলার ঝড়। ইউপি নির্বাচনকে সামনে রেখে সম্ভাব্য প্রার্থীদের প্রচার প্রচারণা ইতিমধ্যে শুরু হয়েছে।

আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনকে সামনে রেখে কমলগঞ্জ  উপজেলার  ৯টি ইউনিয়নের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান ও মেম্বার পদপ্রার্থীদের মাঝে প্রচার-প্রচারণায় ব্যস্ততা শুরু হয়ে গেছে। উপজলোর ৯টি ইউনয়িনের প্রতিটি গ্রাম, পাড়া-মহল্লায় বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান পদপ্রার্থীরা নানা রকমভাবে চালাচ্ছে তাদের গণসংযোগ। দিচ্ছেন নানা উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি।

সরেজমিনে দেখা গেছে, নির্বাচনে জয়ী হওয়ার আগেই নতুন নতুন চেয়ারম্যান পদপ্রার্থীরা এলাকার রাস্তা ঘাটের উন্নয়নসহ দিচ্ছেন নানা প্রতিশ্রুতি। উপজেলার ৯ টি ইউনিয়নের প্রতিটি ইউনিয়নে রয়েছে হাফ ডজন চেয়ারম্যান প্রার্থী। এছাড়াও নানা সমীকরণে ভোটের মাঠে প্রভাব-প্রতিপত্তি থাকে এমন ভোটারদের বাড়িতে কেউ মা, বোন, চাচি, চাচা, দাদা নামে কুশল বিনিময় করছেন । এখানেই থেমে থাকছেন না সম্ভাব্য প্রার্থীরা। তাদের তৎপরতা দেখে মনে হয় আর কয়েকদিন পরেই যেন ভোট। ইউপি নির্বাচনকে সামনে রেখে বাড়ি, পাড়া-মহল্লা, হাট-বাজার ও রাজনৈতিক কার্যালয়গুলো বেশ সরগরম। পাশাপাশি সম্ভাব্য প্রার্থীরা সাধারণ জনগণের মাঝে ছড়িয়ে দিচ্ছেন উন্নয়নমুখী নানা ধরণের আশ্বাস ও আশার বাণী। তফশিল ঘোষনার সম্ভাব্য তারিখ অনিশ্চিত হলেও দলীয় সমর্থন পাওয়ার জন্য তৎপর হয়ে উঠেছে ওইসব ইউনিয়নের সম্ভাব্য প্রার্থীরা। তবে ৯টি ইউনিয়নের প্রায় প্রতিটিতেই হাফ ডজন করে প্রার্থী থাকার কারণে দুঃশ্চিন্তায় আছেন অনেকেই। এদিকে সর্বত্র ভোটারদের মধ্যে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন নিয়ে চলছে চুল ছেড়া নানা বিশ্লেষণ। নির্বাচনের কথা শুনে সাধারণ ভোটাররা বিভিন্ন চায়ের স্টলে দিচ্ছেন নির্বাচনী আড্ডা। যেহেতু দলীয় প্রতীকে নির্বাচন, তাই দলীয় চেয়ারম্যান পদপ্রার্থীকে প্রাধান্য দেবে ভোটাররা ।

এদিকে শমশেরনগর ইউনিয়নের ভাদাইর দেউল গ্রামের বাসিন্দা শমশেরনগর ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের সম্ভাব্য ওয়ার্ড সদস্য পদে প্রতিদ্বন্দিতা করার ইচ্ছা পোষন করে মো: নাজমুল হোসেন ইতিমধ্যে লিফলেট তৈরী করে সাধারণ মানুষের মাঝে বিলি করেছেন। পরে তার বয়স ২২ বছর হওয়ার কারণে আগামি ইউপি নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দিতা করতে পারবেন না জেনে এখন হতাশ হয়েছেন।

কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলম তালুকদার বলেন, এখনও ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনের তফশিল ঘোষণা হয়নি। শমশেরনগর ইউনিয়নের নির্বাচনী ব্যানার, ফেস্টুন ও পোস্টারের কথা শুনেছেন। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে প্রার্থীদের অনুসারী ও সমর্থকরা দোয়া ও দাবি জানিয়ে এসব ব্যানার, ফেস্টুন ও পোস্টার লাগিয়েছেন।


আরো সংবাদ পড়ুন...

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১  
Developed By Radwan Ahmed