করোনাকালীন সরকারী প্রণোদনা বঞ্চিত হলেন উপজেলা পর্যায়ের সাংবাদিকরা

কমলকন্ঠ রিপোর্ট ।।

করোনাকালীন সময়ে দেশের বিভিন্ন সেক্টরের মতো সরকার সাংবাদিকদেরও প্রণোদনা প্রদান করে। তবে এ প্রণোদনার ছিটেফোঁটাও পৌঁছায়নি মফস্বল সাংবাদিকদের মধ্যে। মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলায় কর্মরত সাংবাদিকরা প্রণোদনা চেয়ে লিখিত আবেদন করেও কোন প্রণোদনা না পাওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করছেন। জেলার কিছু সাংবাদিকদের ভাগ্যে সরকারি প্রণোদনা জুটলেও জেলার বাকী ৬টি উপজেলায় কর্মরত সাংবাদিকরা দিবারাত্র জীবনের ঝুঁকি নিয়ে দীর্ঘ ৮মাস দায়িত্ব পালন করলেও তাদের ভাগ্যে জুটেনি ছিটে ফোঁটা সরকারি প্রণোদনা। এনিয়ে বিভিন্ন উপজেলা কর্মরত সংবাদকর্মীদের তীব্র ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। সরকারের সকল উন্নয়ন কর্মকান্ডসহ জাতীয় দূর্যোগ মুহূর্তে উপজেলার সাংবাদিকরা গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করলেও সরকার, জেলা- উপজেলা প্রশাসন তাদের পাশে দাড়াননি।

জানা যায়, করোনা মহামারীর কারনে সরকার গত ২৬ মার্চ থেকে ছুটি ঘোষণা করে। এরপর থেকে জেলা পর্যায়ে লকডাউনও ঘোষণা করা হয়। এসময়ে প্রশাসন, আইন শৃঙ্খলা বাহিনী, স্বাস্থ্যকর্মীদের পাশাপাশি ঝুঁকি নিয়েও সাংবাদিকরা দায়িত্ব পালন করেন। মৌলভীবাজারের সীমান্তবর্তী কমলগঞ্জ উপজেলার জাতীয় দৈনিকে কর্মরত একাধিক সাংবাদিকরা প্রশাসন, আইন শৃঙ্খলা বাহিনী ও স্বাস্থ্যকর্মীদের পাশাপাশি মাঠেঘাটে দায়িত্ব পালন করেন। মানুষের মধ্যে ব্যাপক জনসচেতনায় সাংবাদিকদের মূখ্য ভূমিকা ছিল। সরকার কর্মহীন মানুষদের জন্য খাদ্য সহায়তাসহ বিভিন্ন ধরণের সহযোগিতা প্রদান করে। পরবর্তীতে বিভিন্ন সেক্টরের মতো সাংবাদিকদের মধ্যেও প্রণোদনা প্রদান করা হয়। তবে এসব প্রণোদনা জেলা পর্যায়ে কিছু সাংবাদিকের মধ্যে প্রদান করা হলেও উপজেলা পর্যায়ে সাংবাদিকদের মধ্যে এখন পর্যন্ত তা পৌঁছায়নি। ফলে উপজেলায় কর্মরত সাংবাদিকরা ক্ষোভ প্রকাশ করেন।