Logo
সংবাদ শিরোনাম :
মণিপুরীদের ঐতিহাসিক ‘চহি তারেৎ খুনতাকপা’ দিবস উদযাপন প্রেসক্লাব সভাপতির পুত্র শৈবালে‘র ট্যালেন্টপুলে বৃত্তি লাভ কমলগঞ্জে বোরো চাষের জন্য কৃষকের উদ্যোগে ক্রসবাঁধ নির্মাণ সিপিএসটি-২০ প্রাইজমানি ক্রিকেট টুর্ণামেন্টে হবিগঞ্জ চ্যাম্পিয়ন কিশোরকণ্ঠ মেধাবৃত্তি পরীক্ষা ২০২৩ এর ফল প্রকাশ কমলগঞ্জে ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক রসুলপুরে নৌকার নির্বাচনী মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত আম্বিয়া কিন্ডারগার্টেন স্কুলে অভিভাবক দিবস পালন। কমলগঞ্জে পূর্ব শক্রতার জের ধরে হামলা; ৩ জনকে আটক করে গণপিটুনি মৌলভীবাজারে তৃণমূল পর্যায়ে সরকারি সেবার মানোন্নয়নে গণশুনানি বড়দিন উৎসবকে ঘিরে কমলগঞ্জের ৪৪টি গির্জায় চলছে প্রস্তুতি সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল মছব্বির স্মরণে আলোচনা সভা কমলগঞ্জে ভোটগ্রহণ কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণ কর্মশালা পুলিশ এসল্ট মামলায় কমলগঞ্জে যুবদল নেতা পৌর কাউন্সিলর গ্রেপ্তার কমলগঞ্জে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে হামলা ও লুটপাটের অভিযোগ মৌলভীবাজারের ৪টি আসনে প্রতীক বরাদ্দের পর প্রচারণায় প্রার্থীরা দ্বাদশ জাতীয় নির্বাচনে মৌলভীবাজারের ৪টি আসনে প্রতিদ্বন্ধিতা করবেন ২০ জন প্রার্থী কমলগঞ্জে যুব ফোরাম গঠন যথাযোগ্য মর্যাদায় কমলগঞ্জে ৫২ তম বিজয় দিবস উদযাপন কমলগঞ্জে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস পালিত

ফলো আপ : নাঈম হত্যাকান্ড ।। বিচার চেয়ে পিতার মামলা ।। আসামি ধরতে চলছে সাঁড়াশি অভিযান ।।

রিপোটার : / ৭১ বার দেখা হয়েছে
প্রকাশিত : শনিবার, ১১ নভেম্বর, ২০২৩

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি ।।

ফেসবুকে একটি ফেইক আইডির পোষ্ট নিয়ে বিরোধের জেরে গত ৭ নভেম্বর সন্ধ্যায় মৌলভীবাজার সদরের চাঁদনীঘাট ইউনিয়নের পাহাড় বর্ষিজোড়া এলাকায় প্রকাশ্যে ঘরে ঢুকে বাবা-মা’র সামনে রেজাউল করিম নাঈম নামে ২১ বছর বয়সী কলেজ পড়ুয়া তরুণকে নির্দয়-অমানবিক ভাবে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে রক্তাক্ত করে আহত করার ১০ ঘন্টা পর সিলেটের এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পর ভোর ৪ টায় মৃত্যু হয় ওই তরুণের। ওই ঘটনায় গোটা জেলা জুড়ে নিন্দা আর সমালোচনা ঝর সৃষ্টি হয়। প্রতিবেশী নুরুল ইসলাম এর নেতৃত্বে ওই হামলা চালানো হয়।

ঘটনার একদিন পর মূল হোতা মোঃ নুরুল ইসলাম-কে আসামী করে ১০ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন নিহত নাঈমের বাবা মো. চেরাগ মিয়া (মামলা নং ৮/৩৪০)। পুলিশ আসামিদের ধরতে অব্যাহত রেখেছে বলে পুলিশ জানা গেছে।

গত বৃহস্পতিবার ৯ নভেম্বর চেরাগ মিয়া বাদী হয়ে মৌলভীবাজার মডেল থানায় বর্ষিজোড়া এলাকার ইদ্রিস মিয়ার ছেলে নুরুল ইসলামকে ১নং আসামী করে ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে মোট ১০ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত ৪-৫ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেন। তবে ঘটনার পরদিন সকালে সোহান নামে একজনকে পুলিশ আটক করতে সক্ষম হলেও প্রধান আসামীসহ অন্য আসামী বাড়ি তালা দিয়ে গাঁ-ঢাকা দিয়েছে। এখন পর্যন্ত মূল আসামী নুরুল ইসলামসহ জড়িত সব আসামীদের ধরতে পুলিশ সাঁড়াশি অভিযান চালাচ্ছে। আসামীরা সবাই নিহত নাঈম এর প্রতিবেশী ও একই এলাকার বাসিন্দা।

অন্য আসামীরা হলেন, নুরুল ইসলাম এর ছেলে মোঃ রনি মিয়া (২৩), কাদির মিয়ার ছেলে আনোয়ার হোসেন (২৪), ইদন মিয়ার ছেলে সোহান মিয়া (১৯), আব্দুল আজিজ এর ছেলে মোঃ সাইমন ইসলাম (২১), ইদন মিয়ার ছেলে মোঃ ইমন মিয়া (২১), আলামিন মিয়া (২০) পিতা অজ্ঞাত, সাকিল হোসেন (২১) পিতা অজ্ঞাত, নুরুল ইসলাম এর স্ত্রী পারভিন বেগম (৪৫) ও নুরুল ইসলাম এর মেয়ে জেসি আক্তার (২০) সহ অজ্ঞাত ৪ থেকে ৫ জন।

এদিকে কলেজ ছাত্র হত্যাকাণ্ডের প্রধান আসামী নুরুল ইসলাম ঘটনার পর থেকেই এলাকা ছেড়ে গা-ঢাকা দিয়েছেন। নুরুল ইসলাম-কে এক সময়ে বিএনপির বিভিন্ন রাজনৈতিক কর্মসূচিতে সক্রিয় দেখা গেলেও ক্ষমতার পট-পরিবর্তনের সাথে সাথে ধিরে ধিরে খোলস পাল্টিয়ে ফেলেন। অপরদিকে ছেলে হারিয়ে ঘটনার ৪দিন পর এখনো নাঈমের পরিবারে চলছে শোকের মাতম। নিহত নাঈম পরিবারে সবার বড়, তারা দুই ভাই ও একবোন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও মৌলভীবাজার মডেল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) নাজমুল ইসলাম জানান, সব আসামীদের ধরতে পূলিশসহ আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর অভিযান চলছে। দ্রুতই সব আসামী ধরা পড়বে।

জানতে চাইলে মৌলভীবাজার মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হারুনুর রশিদ চৌধুরী জানান, মামলা হয়েছে, তদন্ত হচ্ছে এবং আসামীদের ধরতেও চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।


আরো সংবাদ পড়ুন...
Developed By Radwan Ahmed