Logo
সংবাদ শিরোনাম :
মণিপুরীদের ঐতিহাসিক ‘চহি তারেৎ খুনতাকপা’ দিবস উদযাপন প্রেসক্লাব সভাপতির পুত্র শৈবালে‘র ট্যালেন্টপুলে বৃত্তি লাভ কমলগঞ্জে বোরো চাষের জন্য কৃষকের উদ্যোগে ক্রসবাঁধ নির্মাণ সিপিএসটি-২০ প্রাইজমানি ক্রিকেট টুর্ণামেন্টে হবিগঞ্জ চ্যাম্পিয়ন কিশোরকণ্ঠ মেধাবৃত্তি পরীক্ষা ২০২৩ এর ফল প্রকাশ কমলগঞ্জে ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক রসুলপুরে নৌকার নির্বাচনী মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত আম্বিয়া কিন্ডারগার্টেন স্কুলে অভিভাবক দিবস পালন। কমলগঞ্জে পূর্ব শক্রতার জের ধরে হামলা; ৩ জনকে আটক করে গণপিটুনি মৌলভীবাজারে তৃণমূল পর্যায়ে সরকারি সেবার মানোন্নয়নে গণশুনানি বড়দিন উৎসবকে ঘিরে কমলগঞ্জের ৪৪টি গির্জায় চলছে প্রস্তুতি সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল মছব্বির স্মরণে আলোচনা সভা কমলগঞ্জে ভোটগ্রহণ কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণ কর্মশালা পুলিশ এসল্ট মামলায় কমলগঞ্জে যুবদল নেতা পৌর কাউন্সিলর গ্রেপ্তার কমলগঞ্জে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে হামলা ও লুটপাটের অভিযোগ মৌলভীবাজারের ৪টি আসনে প্রতীক বরাদ্দের পর প্রচারণায় প্রার্থীরা দ্বাদশ জাতীয় নির্বাচনে মৌলভীবাজারের ৪টি আসনে প্রতিদ্বন্ধিতা করবেন ২০ জন প্রার্থী কমলগঞ্জে যুব ফোরাম গঠন যথাযোগ্য মর্যাদায় কমলগঞ্জে ৫২ তম বিজয় দিবস উদযাপন কমলগঞ্জে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস পালিত

কমলগঞ্জে মৃত্যুবরণকারী বিধবা নারী করোনা নেগেটিভ

রিপোটার : / ৬৫০ বার দেখা হয়েছে
প্রকাশিত : বৃহস্পতিবার, ১৮ জুন, ২০২০

কমলকন্ঠ রিপোর্ট ।। মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গত ৬ জুন শ্বাসকষ্ট, জ্বও ও বমি করা নিয়ে প্রাথমিক সেবা গ্রহন করে করোনা পরীক্ষার নমুনা দিয়ে শমশেরনগর ইউনিয়নের শিংরাউলী গ্রামে নিজ বাড়িতে চিকিৎসাধীন ছিলেন ৪ সন্তানের জননী জয়তুন নেছা (৫০)। নিজ বাড়িতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় প্রতিবেশী ও গ্রাম্য এক শ্রেণির মানুষের অপপ্রচারের বিধবা নারী ক্রমে আরও অসুস্থ্য হয়ে পড়েন। পরবর্তীতে কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার নির্দেশনায় বিধবা নারীকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ১১ জুন মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হলে বিকালে সেখানেই তিনি মৃত্যুবরণ করেছিলেন।

অন্যদিকে বিধবা নারী জানাজা ও দাফন নিয়ে গ্রামে শুরু হয়ে নতুন চাল। বিধবার বড় মেয়ে লুনা বেগম ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, তাদের তিন বোনের বিয়ে হয়ে গেলে বাড়িতে ছোট ভাই হাসান (১৪)-কে নিয়ে মা একা বাস করতেন। মায়ের এজমা সমস্যা ছিল। এর মাঝে জ্বর হলে কোন খাবার খেতে না পেয়ে বমি করায় ৬ জনু কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে প্রাথমিক চিকিৎসা নেওয়া হয়। তখনই করোনা পরীক্ষার জন্য তার মায়ের নমুনা দেওয়া হয়েছিল। নমুনা পরীক্ষার ফলাফল পেতে বিলম্ব হওয়ায় গ্রামে ছড়িয়ে পড়ে তার মায়ের করোনা হয়েছে। উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা করোনা পজেটিভ হলে দ্রুত ফলাফল পাওয়া যায় আর নিগেটিভ হলে কিছুটা বিলম্ব হয় বলার পরও গ্রামের মানুষজন তা মানতে রাজি হননি।

গ্রামের একটি বড় অংশের অপপ্রচারে তার মা মানসিকভাবে আরও দুর্বল হয়ে অসুস্থ্য হয়ে পড়েন। মায়ের অবস্থা বেশী খারাপ হলে আবারও কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তার সহায়তায় উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে (মাকে) ১১ জন দুপুরে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হলে বিকালে সেখানে তিনি মৃত্যুবরণ করেন। এর পর রাতে গ্রামে মায়ের লাশ এনে জানাজা নামাজ শেষে গ্রাম্য কবরস্থানে দাফন করা হলেও বেশ কিছু সমস্যায় পড়তে হয়েছিল।

এদিকে নমুনা দেওয়া ১১ দিন পর ১৭ জুন রাতে মৃত্যুবরণকারী বিধবা নারী জয়তুন নেছার রিপোর্ট কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আসে। তাতে দেখা যায় তিনি করোনা নিগেটিভ ছিলেন। লুনা বেগম আরও বলেন, মায়ের জানাজায় তার নানা বাড়ি ও শ্বশুরবাড়ির লোকজন আসতে চাইলে করোনার অপপ্রচার চালিয়ে পতনউষার ইউনিয়নের এক ইউপি সদস্য তাদেরকে আসতে প্রতিবন্ধকতা করেছিলেন।

কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা, এম মাহবুবুর আলম ভূইয়া বলেন, শুরু থেকেই মনে হয়নি জয়তুন নেছা করোনা আক্রান্ত ছিলেন। শেষমেশ ফলাফলেও তার করোনা নিগেটিভ এসেছে। তিনি করোনা হলে রোগীকে ঘৃনা না করে তাদের প্রতি বেশী করে মানবিক হতে বলেন। কারণ করোনা আক্রান্ত হলে আইসোলেশনে থেকে মনোবল শক্ত করে নিয়ম মাফিক চললে রোগী দ্রুত সুস্থ্য হয়ে উঠেন। আর এ সময় ঘরের বাইরের সবাই প্রয়োজনে ফোনে রোগীর সাথে কথা বলে মনোবল চাঙা করে দিতে হয়।


আরো সংবাদ পড়ুন...
Developed By Radwan Ahmed